এসইও করার নিয়ম

এসইও হল যে পদ্ধতিতে আপনার ওয়েবসাইটের পেজকে একটা নির্দিষ্ট কি-ওয়ার্ড এর ভিত্তিতে সার্চের মাধ্যমে গুগল, ইয়াহু, বিং সহ অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে প্রথম পর্যায়ে অবস্থান করানো হয়। কিন্তু বর্তমানে বেশিরভাগ অনলাইন মার্কেটগুলো গুগোল সার্চ রেজাল্টের অসাধারণ কিছু অ্যালগোরিদম এর জন্য গুগল সার্চ ইঞ্জিন কে টার্গেট করে এসইও করে থাকে। কারণ বর্তমানে গুগলেই সব থেকে বেশি সার্চ করা হয়। অর্থাৎ সহজ ভাষায় বলতে গেলে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বা এসইও হল, সার্চ ইঞ্জিনের অপটিমাইজেশন এর মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইট কে সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পৃষ্ঠায় আনার জন্য একটা প্রযুক্তিগত কৌশল।

এসইও কতগুলো ধারাবাহিক কাজের সমষ্টি৷ একক কোন কাজ নয় যে শুরু করলেন আর একঘণ্টা পর শেষ করে ফেললেন৷ এসইও ধীরে ধীরে করতে হয়৷

সাধারণত অন পেজ এসইও কয়েকটি ধাপে করতে হয়৷ যেমন: সাইটে সঠিক টাইটেল ট্যাগ ব্যবহার করতে হবে, এরপর সাইটে মেটা ট্যাগ যুক্ত করতে হবে, রোবোট ট্যাগ যুক্ত করতে হবে৷ সাইটের পারমালিংক সুন্দর মানানসই করতে হবে৷ সাইটে ফেভিকন যুক্ত করতে হবে৷ সম্ভব হলে ডিজাইন সুন্দর করতে পারেন৷

এরপর সাইটকে সার্চ ইঞ্জিনে সাবমিট করতে হবে যেমন: গুগলে সাবমিট করতে পারেন, বিং, ইয়াহু তে সাবমিট করতে পারেন৷ সাইট সাবমিট করার পর সাইটকে ভেরিফাইড করাতে হবে সার্চ ইঞ্জিন দিয়ে৷ ভেরিফাইড হয়ে গেলে সাইটম্যাপ সাবমিট করতে হবে সার্চ কনসোলে৷ তার আগে নিজের সাইটেও সাইটম্যাপ ইনস্টল করে নিতে হবে৷ তাহলে সার্চ বোট সাইটম্যাপ সহজে খুজে পাবে৷

এগুলো গেল অন পেজ এসইও ৷ কিন্তু অফ পেজ এসইও আজীবন করতে হয়৷ এজন্য ব্যাকলিংক তৈরি করতে হবে বিভিন্ন সাইটে, ব্লগে, ফোরামে পোস্ট দিয়ে বা কমেন্ট করে৷ মনে রাখবেন যত বেশি ব্যাকলিংক তত বেশি ভিজিটর৷ সাথে সাথে নিজের সাইটেও অন্যের লিংক শেয়ার করতে হবে৷ ফলে গুগল সার্চ ইঞ্জিন মনে করবে আপনি মানুষকে দরকারি তথ্য দিয়ে সাহায্য করছেন৷ তাই গুগল আপনার সেই পোস্টকে ইনডেক্স করে নিবে ৷

যাইহোক, আশা করি এসইও সম্পর্কে মোটামুটি একটি ধারণা পেয়েছেন৷ এভাবে কাজ করতে থাকেন আর গুগলে এ সম্পর্কে খুজেন আরো অনেক তথ্য পেয়ে যাবেন৷ ধন্যবাদ৷

 97 Views

Admin

By Admin

ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুস পল্লী চিকিৎসক

Leave a Reply